• শিরোনাম

    গ্রিল কেটে স্বর্ণালঙ্কার-নগদ অর্থ চুরিই ওদের পেশা

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ২২ নভেম্বর ২০১৮

    গ্রিল কেটে স্বর্ণালঙ্কার-নগদ অর্থ চুরিই ওদের পেশা

    রাজধানী বিভিন্ন এলাকার কোন বাসায় নগদ অর্থ ও স্বর্ণালঙ্কার বেশি তা আগে খোঁজ নেয় ওরা। পরে শুরু হয় রেকি। নজরদারির মাধ্যমে নিরিবিলি অন্ধকার গলির বাসা গুলোই টার্গেট করে। এরপর বাসার অন্ধকার দিকের স্যানিটারি পাইপ বেয়ে ওপরে উঠে কার্নিশে ভর করে জানালার গ্রিল কেটে ভেতরে প্রবেশ করে। বাসায় নগদ অর্থ ও স্বর্ণালঙ্কার, মোবাইল ফোনসহ দামি জিনিসপত্র নিয়ে দ্রুত সটকে পড়ে।

    রাজধানীর মিরপুর থানায় গ্রিল কেটে দুর্ধর্ষ চুরির অভিযোগে মামলার তদন্ত শুরু করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। নজরদারির মাধ্যমে গ্রিলকাটা পেশাদার চোর চক্রের সন্ধান পায় পিবিআই ঢাকা মেট্রো। বুধবার (২১ নভেম্বর) রাতে রাজধানীর মিরপুর মডেল থানাধীন মনিপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে থেকে চোরাই মালামাল ক্রয়-বিক্রয়ের সময় চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেফতা করে পিবিআই ঢাকা মেট্রোর বিশেষ টিম। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, গ্রিলকাটা চক্রের প্রধান মো. হযরত আলী ওরফে রকি (৩২), মো. শাহিন (২৫) ও সগির ওরফে রাজু (২৭)। এ সময় ল্যাপটপ, কম্পিউটার হার্ডডিস্ক, মোবাইলসহ বেশ কিছু চোরাই মাল উদ্ধার করা হয়।

    পিবিআই ঢাকা মেট্রোর বিশেষ পুলিশ সুপার মো. আবুল কালাম আজাদ জানান, মিরপুর বড়বাগের ২২/আই/৪/১ এর ফরিদ উদ্দিন আহমেদ নামের বাসিন্দা মিরপুর থানায় অভিযোগ করেন, গত ১৪ অক্টোবর সকালে ঘুম থেকে জেগে তার স্ত্রী হাসিনা আক্তার পান্নার স্যামসাং নোট-৫, মেয়ে সিদরাতুজ সাবা বুশরার স্যামসাং এস-৬ মোবাইল ফোন নেই। পরে খোঁজ করে দেখতে পান, ছেলে তৌফিক উদ্দিন আহমেদ অনিকের কক্ষের দক্ষিণের জানালার দুটি গ্রিল কাটা। ওই রাতে অনিকের কক্ষ ফাঁকা ছিল।

    চুরির বিষয়টি বুঝতে পেরে কক্ষ থেকে অ্যাপল (ম্যাক বুক), ল্যাপটপ, স্যামসাংয়ের দুটি মোবাইল ফোন পোর্টেবল হার্ডডিস্ক ও নগদ পাঁচ হাজারসহ আড়াইলাখ টাকার মালামাল চুরির অভিযোগ তুলে মিরপুর মডেল থানায় মামলা করেন তিনি। মামলা নং-৩১। এরপর গ্রিলকাটা পেশাদার চোর চক্রের সন্ধানে তদন্তের ভার নেয় পিবিআই ঢাকা মেট্রো। মামলাটি তদন্ত করছিলেন পিবিআই ঢাকা মেট্রোর এসআই আলমগীর ভূইয়া। গত রাতে ওই চক্রের ওই তিন সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।

    জিজ্ঞাসাবাদে পিবিআই জানতে পারে, চক্রটি দীর্ঘদিন থেকে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার বাসা টার্গেট করে রাতের অন্ধকারে স্যানিটারি পাইপ বেয়ে বাসার ওপরে উঠে। জানালার কার্নিশের ওপর ভর করে ওপরে উঠে গ্রিল কেটে নগদ টাকা, স্বর্ণ অলংকারসহ মূল্যবান সামগ্রী চুরি করে নিয়ে যায়। চোর চক্রটি রাজধানীর অসংখ্য বাসা বাড়ির গ্রিল কেটে মূল্যবান সামগ্রী চুরি করেছে বলে তথ্য দিয়েছে।

    চোরাইকৃত মোবাইল ফোন এবং ল্যাপটপ রাজধানীর অভিজাত এলাকার বেশ কিছু মার্কেটে বিক্রির তথ্যও পাওয়া গেছে। গ্রেফতারদের তথ্যমতে চোরাই মালামাল ক্রয়-বিক্রয়ে জড়িত অভিজাত এলাকার একাধিক দোকান মালিকদের সর্ম্পকের তথ্য মিলেছে। পেশাদার এ চোর চক্রের বিরুদ্ধে দারুস সালাম থানাসহ একাধিক থানায় বেশ কয়েকটি চুরির মামলা রয়েছে। চক্রের একাধিক সদস্যকে চিহ্নিত করা গেছে। তাদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে daynightbd.com