• শিরোনাম

    দুই সিটিতে ভোটে যাচ্ছে বিএনপি

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ০২ এপ্রিল ২০১৮

    দুই সিটিতে ভোটে যাচ্ছে বিএনপি

    ফখরুল বলেন,আমাদের দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা দেশনেত্রীকে আজকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে আটক রাখা হয়েছে। তার মুক্তি আন্দোলনকে আরও বেগবান করার জন্যে এই নির্বাচনকে আন্দোলনের অংশ হিসেবে নেব বলে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ছাড়া গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে অব্যাহত রাখা, জনগণের অধিকার প্রয়োগের সুযোগ সৃষ্টি করার জন্য আন্দোলনের অংশ হিসেবে আমরা এই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব।

    নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কি না তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আজকে যখন বিরোধী দলকে তাদের যে সাংবিধানিক অধিকারগুলো রয়েছে তাদের সভা করার, সমিতি করার, জনগণের কাছে যাওয়ার যে ন্যূনতম অধিকারগুলো রয়েছে, সেই অধিকারগুলো প্রয়োগ করতে দেওয়া হচ্ছে না। সেক্ষেত্রে এই নির্বাচন কতটুকু কার্য্কর হবে এবং সেটা কতটুকু বিরোধী দলকে করতে দেওয়া হবে তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে।

    আগামী ১৫ মে ভোটের দিন রেখে শনিবার গাজীপুর ও খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা করেছে নির্বাচন কমিশন।দুই সিটি করপোরেশনে প্রার্থী চূড়ান্ত হয়েছে কি না জানতে চাইলে মির্জা ফখরুল বলেন, দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও স্থায়ী কমিটির সদস্যরা বসে প্রার্থী ঠিক করা হবে।

    সর্বশেষ ২০১৩ সালে ৬ জুলাই গাজীপুর সিটি করপোরেশ নির্বাচনে বিএনপির অধ্যাপক আবদুল মান্নান এবং ওই বছর ১৫ জুন খুলনা সিটি করেপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির মনিরুজ্জামান মনি বিজয়ী হয়েছিলেন। তিন ঘণ্টাব্যাপী এই বৈঠকে সিটি করপোরেশন নির্বাচন ছাড়াও খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন ও সার্বিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়। লন্ডন থেকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ভিডিও কলের মাধ্যমে এই যৌথসভায় নেতাদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখেন।

    মির্জা ফখরুলের সভাপতিত্বে বৈঠকে স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মওদুদ আহমদ, জমিরউদ্দিন সরকার, মাহবুবুর রহমান, রফিকু্ল ইসলাম মিয়া, মির্জা আব্বাস, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন। ভাইস চেয়ারম্যানদের মধ্যে হারুন আল রশীদ, আবদুল্লাহ আল নোমান, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, শাহজাহান ওমর, আলতাফ হোসেন চৌধুরী, বরকতউল্লাহ বুলু, মোহাম্মদ শাহজাহান, কামাল ইবনে ইউসুফ, মীর নাসির, রুহুল আলম চৌধুরী, মাহমুদুল হাসান, ইনাম আহমেদ চৌধুরী, আমিনুল হক, আবদুল আউয়াল মিন্টু, এজেডএম জাহিদ হোসেন, আহমেদ আজম খান, জয়নাল আবেদীন, নিতাই রায় চৌধুরী, গিয়াস কাদের চৌধুরী, শওকত মাহমুদ ছিলেন।

    উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্যদের মধ্যে উকিল আবদুস সাত্তার, লুৎফর রহমান খান আজাদ, সাবিহউদ্দিন আহমেদ, আমানউল্লাহ আমান, মিজানুর রহমান মিনু, মশিউর রহমান, আবুল খায়ের ভুঁইয়া, আ ন হ আখতার হোসেন, জয়নুল আবদিন ফারুক, ভিপি জয়নাল আবেদীন, মনিরুল হক চৌধুরী, হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু, ফজলুল হক আসপিয়া, সৈয়দ মেহেদি আহমেদ রুমি, আবদুল কাইয়ুম, ইসমাইল জবিউল্লাহ, আবদুর রশীদ, জিয়াউর রহমান খান,

    তাজমেরী ইসলাম, সাহিদা রফিক, গোলাম আকবর খন্দকার, কবীর মুরাদ, ফজলুর রহমান, হাবিবুর রহমান হাবিব, নাজমুল হক নান্নু, তাহমিনা রুশদীর লুনা, এনামুল হক চৌধুরী, সিরাজুল ইসলাম, সুকোমল বড়ুয়া, বিজন কান্তি সরকার, তৈমুর আলম খন্দকার, বোরহান উদ্দিন, আফরোজা খানম রীতা, আবদুস সালাম, মোহাম্মদ শাহজাদা মিয়া, এসএম ফজলুল হক, আবদুল হাই, আব্দুল কুদ্দুস, মামুন আহমেদ, খন্দকার মুক্তাদির হোসেন,

    সৈয়দ শামসুল আলম, যুগ্ম মহাসচিব মাহবুব উদ্দিন খোকন এবং সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, আসাদুল হাবিব দুলু, সাখাওয়াত হোসেন জীবন, মাহবুবুর রহমান শামীম, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, বিলকিস জাহান শিরিন, শামা ওবায়েদ, প্রচার সম্পাদক শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে daynightbd.com