• শিরোনাম

    যৌতুকের দাবিতে শিক্ষকের ওপর স্বামী ও তার পরিবার কর্তৃক নির্যাতন

    নিজস্ব প্রতিবেদক | রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | পড়া হয়েছে 23 বার

    যৌতুকের দাবিতে শিক্ষকের ওপর স্বামী ও তার পরিবার কর্তৃক নির্যাতন

    প্রতীকী ছবি

    নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় স্বামীর বাড়িতে যৌতুকের দাবিতে এক শিক্ষকের ওপর স্বামী ও তার পরিবারের লোকজনের নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। গত শনিবার ভুক্তোভোগী মোছা. রুনা আক্তার (৩২) নির্যাতনের শিকার হয়ে উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। পরে তিনি বাদী হয়ে রাতে তার স্বামীসহ তিনজনের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

    শিক্ষক রুনা আক্তার বান্দনাল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক। অভিযুক্ত স্বামীর নাম রিয়াজ আহম্মেদ সিরাজ (৪০), শিক্ষকের ভাসুর মো. অলি উল্লাহ (৪৫) ও বোন শিল্পি আক্তার (৪৭)। তারা উপজেলার কচন্দরা গ্রামের আছাব উদ্দিনের ছেলে এবং মেয়ে।

    অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, রিয়াজ আহম্মেদের সঙ্গে ১০ বছর পূর্বে শিক্ষক রুনা আক্তারের বিয়ে হয়। তাদের চারজন সন্তান রয়েছে। বিয়ের কয়েক বছর পর তার স্বামী রিয়াজ আহম্মেদ, ভাসুর অলি উল্লাহ ও বোন শিল্পি আক্তার যৌতুকের দাবিতে রুনাকে নির্যাতন করে আসছিল। প্রায় ৭ বছর আগে রুনার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চাকরি হয়। তার বেতনের সব টাকা তার স্বামী এবং পরিবারের লোকজনকে দিয়ে দেয়। এর পরেও তারা আরো যৌতুকের টাকা দাবি করলে এক বছর পূর্বে ৪ লাখ টাকা লোন নিয়ে তাদের দেন রুনা। কয়েকমাস আগে আবার রুনার থেকে আবার ১০ লাখ টাকা দাবি করে তারা। এ অবস্থায় শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) রুনার বাবার থেকে আরও ১০ লাখ টাকা যৌতুক আনতে বলে। কিন্তু ওই শিক্ষক আর টাকা দিতে পারবেনা বলে জানালে রুনার স্বামী এবং পরিবারের লোকজন তাকে মারধর করে।

    শিক্ষক রুনা আক্তার বলেন, যৌতুকের জন্য আমার স্বামীসহ পরিবারের লোকজন আমাকে প্রায়সময় নির্যাতন করত। গত শনিবার আবার মারধর করে। এখন আমি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ নিয়ে কেন্দুয়া থানায় লিখিত অভিযোগ করেছি। আশা করি অভিযোগ আমলে নিয়ে তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিবেন।

    এদিকে শিক্ষক রুনা আক্তারের স্বামী রিয়াজ আহম্মেদের মোবাইল ফোনে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

    কেন্দুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক বলেন, শিক্ষিকা রুনা আক্তারের একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তার স্বামী ও পরিবারের লোকজন যৌতুকের জন্য তাকে নির্যাতন করেছেন অভিযোগে উল্লেখ করেছেন। শিক্ষিকা উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। অভিযোগের ভিত্তিতে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ১০:৪৬ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

    daynightbd.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১