• শিরোনাম

    নিবন্ধনের আওতায় আসছে গাড়ি মেরামতের কারখানা

    নিজস্ব প্রতিবেদক | মঙ্গলবার, ০৪ জুন ২০২৪

    নিবন্ধনের আওতায় আসছে গাড়ি মেরামতের কারখানা

    সড়ক পরিবহন আইন অনুযায়ী যানবাহন মেরামতের কারখানাগুলোকে বিআরটিএ এর কাছ থেকে নিবন্ধন নিতে হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ বিআরটিএ চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মজুমদার।

    মঙ্গলবার (৪ জুন) দুপুরে রাজধানীর বনানীতে বিআরটিএ সদর কার্যালয়ে ‘রিপোটার্স ফর রেল অ্যান্ড রোড’- এর সদস্যদের সঙ্গে বিআরটিএর মতবিনিময় সভায় একথা জানান তিনি।

    এ বিষয়ে সভায় বিআরটিএ চেয়ারম্যান বলেন, ‘যানবাহন মেরামত কারখানাগুলোকে নিবন্ধনের আওতায় আনার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এর জন্য বিভাগীয় কমিটির গঠন করে দেওয়া হয়েছে। বিভাগীয় কমিটি তালিকা করবে কোথায় কোথায় যানবাহন মেরামত কারখানা আছে। তারপর এসব কারখানাকে নিবন্ধনের আওতায় আনা হবে। সেই লক্ষ্যে কাজও শুরু হয়ে গেছে’।

    এদিকে, অচল গাড়ি সচল,নকশা পরিবর্তন, মোটরগাড়ির যে কোনো সমস্যার সমাধানে যন্ত্রাংশের সংযোজনসহ নানান কাজ মেরামত হয় ওয়ার্কশপে। এ ছাড়া নতুন বডি তৈরি, গাড়ি রিমডেলিংয়, ইঞ্জিনের নাট, চেসিস, বিয়ারিং, টায়ার ও স্প্রিংসহ ছোট-বড় নানা সমস্যা সমাধান করা হয় এখানে। তবে এবার এসব কারখানাগুলোকে নিবন্ধনের আওতায় আনছে বিআরটিএ। সংস্থাটি বলছে, এতে ঠিক থাকবে যন্ত্রাংশের গুণগত মান।

    যানবাহনের গতিসীমার বিষয়ে বিআরটিএ চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের বিভিন্ন বিষয়ে বিশেষ করে সড়কের পারিপার্শ্বিক অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতেই গতিসীমার গাইডলাইন করা হয়েছে। দুর্ঘটনা কমানোর জন্যই এই নীতিমালা করা হয়েছে। কারণ দুর্ঘটনার একটি বড় কারণ অতি গতি।

    বিআরটিএ চেয়ারম্যান আরো জানান, চলতি বছরের মে পর্যন্ত সারা দেশে নিবন্ধনকৃত মোটরযানের সংখ্যা ৬০ লাখ ৭০ হাজার ৫৪১টি। এর মধ্যে বাস ৫৫ হাজার ১৫টি আর মোটরসাইকেল ৪৪ লাখ ১৭ হাজার ৩৮৮টি। সভায় বিআরটিএ এর ডিজিটাল সেবার বিষয়ে অবহিত করা হয়। এ ছাড়া সাংবাদিকদের নানান প্রশ্নের উত্তর দেন বিআরটিএ চেয়ারম্যান।

    গত ১০ মাসে সড়কে নিহত ৪৭২৫ জন : গভায় বিআরটিএ এর পক্ষ থেকে জানানো হয়, ২০২৩ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের গত এপ্রিল মাস পর্যন্ত ১০ মাসে সারা দেশে ৫ হাজার ২৪৫টি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে। এসব দুর্ঘটনায় ৪ হাজার ৭২৫ জন নিহত হয়েছেন এবং আহত হয়েছেন ৬ হাজার ৭০২ জন।

    এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনে দেখা যায়, ২০২৩ সালের জুলাই মাসে সারাদেশে ৫৬৬টি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন ৫৩৩ জন এবং আহত হয়েছেন ৯৩৪ জন। আগস্ট মাসে ৪৫৮টি দুর্ঘটনায় ৩৭৬ জন নিহত এবং আহত হোন ৬৫৯ জন। সেপ্টম্বর মাসে ৪৫৪টি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ৪১০ জন ও আহত হয়েছেন ৬০৯ জন। অক্টোবর মাসে ৪৩৭টি দুর্ঘটনায় নিহত হোন ৩৯৪ জন আর আহত হোন ৪৯২ জন। নভেম্বর মাসে ৫৫৯টি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হোন ৪৭০ জন আর আহত হোন ৫৮১ জন। ডিসেম্বর মাসে ৪৮৩টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৪৩৩ জন এবং আহত হোন ৬৪১ জন। আর ২০২৪ বছর জানুয়ারি মাসে দুর্ঘটনা ঘটে ৪৩৭টি এতে নিহত হোন ৪০৪ জন আর আহত হোন ৫১৪ জন। ফেব্রুয়ারি মাসে ৫৬৯টি দুর্ঘটনায় নিহত হোন ৫২৩ জন এবং আহত হোন ৭২২ জন। মার্চ মাসে ৬২৪টি দুর্ঘটনায় ৫৫০ জন নিহত হোন এবং আহত হোন ৬৮৪ জন। আর এপ্রিল মাসে ৬৫৮টি দুর্ঘটনায় নিহত হোন ৬৩২ জন, আহত হোন ৮৬৬ জন। সব মিলিয়ে গত দশ মাসে সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে ৫ হাজার ২৪৫টি। এতে নিহত হোন ৪ হাজার ৭২৫ জন আর আহত হোন ৬ হাজার ৭০২ জন।

    প্রতিবেদনে বলা হয়, সড়ক দুর্ঘটনা কমাতে দক্ষ ও মানবিক গুণসম্পন্ন মোটরযান চালক তৈরীতে বিআরটিএ ২০০৮ সাল থেকে পেশাজীবী মোটরযান চালকদেরকে প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছে। ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে সারাদেশে মোট ১ লাখ ১৬ হাজার ৭৩০ জন পেশাজীবী মোটরযান চালককে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। সড়ক দুর্ঘটনা কমাতে বিআরটিএ নিয়মিতভাবে পেশাজীবী মোটরযান চালকদের দক্ষতা ও সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য স্বল্পমেয়াদী প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে।

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ৮:১৫ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০৪ জুন ২০২৪

    daynightbd.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০