• শিরোনাম

    পুলিশের হস্তাক্ষেপে বৃদ্ধা মা ফিরলেন সন্তানের কাছে

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯

    পুলিশের হস্তাক্ষেপে বৃদ্ধা মা ফিরলেন সন্তানের কাছে

    অনিচ্ছা সত্তে¡ও পুলিশের হস্তাক্ষেপে অসহায় এক বৃদ্ধামাকে ঘরে ফিরিয়েনিয়েছেন সন্তানরা।পুলিশ সদর দফতরের এআইজি (মিডিয়া) মো. সোহেল রানার নির্দেশনায় কামরাঙ্গীরচর থানা পুলিশ বৃদ্ধার আত্মীয় স্বজনদের খুঁজে তাকে পরিবারের সঙ্গে থাকার ব্যবস্থা করেন।গত ৪ ডিসেম্বর একটি অনলাইন পোর্টালে ‘মা মারা গেলে বলবেন, লাশ নিয়ে যাবো’ শিরোনামে ওই বৃদ্ধাকে নিয়ে সংবাদ প্রকাশ হলে বিষয়টি পুলিশের দৃষ্টিগোচর হয়।

    কামরাঙ্গীরচর থানার ওসি এবিএম মশিউর রহমান বলেন, প্রকাশিত প্রতিবেদনে ওই বৃদ্ধার নাম ঠিকানা কোন কিছু না থাকায় সন্তান ও স্বজনদের খুঁজ বের করতেপ্রথমদিকে বেগ পেতে হয়। ওসি বলেন, প্রথমে মিরপুর পাইকপাড়ার বৃদ্ধাশ্রম থেকে তাকেখুঁজে বের করা হয়। কিন্তু বৃদ্ধাশ্রমের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে স্বজনদের সঙ্গে যোগাযোগের ঠিকানা চাইলেপাওয়া যায়নি। একপর্যায়ে বিভিন্ন সময় মোবাইল ফোনে বৃদ্ধার সঙ্গে যেসব নাম্বার থেকে কথা বলা হয়েছে তা সংগ্রহ করা হয়। পরবর্তীতে নাগরিক তথ্য ডাটা বেজের সাহায্যে বৃদ্ধার ছেলে আলাউদ্দিনের ঠিকানা সংগ্রহ করে তার সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করে পুলিশ। প্রথমে মাকে নিতে অসম্মতি জানালে ছেলেকে বোঝানো হয়। পরবর্তীতে ওই বৃদ্ধাশ্রমথেকে আম্বিয়া বেগমকে তার সন্তানের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

    প্রকাশিত সংবাদ সূত্রে জানা যায়,নব্বই বছরোর্ধ্ব বৃদ্ধা আম্বিয়া বেগম সন্তানদের সঙ্গে থাকতেন। পাঁচ বছর আগে পড়ে গিয়ে তার ডান হাত ভেঙ্গে যায়। চলাফেলার শক্তিহারিয়ে ফেলেন। এক সময়ে পরিবার বঞ্চিত এই মানষিক ভারসাম্যহীনহয়ে পড়েন। তখন সন্তানদের কাছেও অচ্ছুত হিসেবে বিবেচিত হয়ে পড়েন এই মা।এমন সময়ে ২০১৮ সালে অজ্ঞাত পরিচয়ে মিরপুরের পাইকপাড়ার ‘চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড এইজ কেয়ারে’ওই বৃদ্ধাকে রেখে যানতার এক নাতনি। তবে অসহায় এই বৃদ্ধা সব সময় পরিবারের সদস্যদের কাছে যাওয়ার আকুতি জানাতেন।একপর্যায়ে বৃদ্ধাকে কেয়ারে রেখে যাওয়ার সময় যোগাযোগের জন্য দেওয়া মোবাইল ফোন নম্বারে কল করা হলো ‘মা মারা গেলে বলবেন, লাশ নিয়ে যাবো’ এমন প্রতিউত্তর দেয় ওই সন্তান।

    বৃদ্ধাশ্রম সূত্রে জানা যায়, প্রতিষ্ঠানটি থেকে বৃদ্ধার পরিবারের সঙ্গে যোগযাযোগ করে তাকে নিয়ে যেতে বলছেবৃদ্ধার পুত্রবধূক্ষেপে যান। এমনকি শাশুড়িকে নিয়ে যেতে বললে প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে অপহরণের মামলা করবেন বলেও হুমকি দেন পুত্রবধূ। এ বিষয়ে এআইজি সোহেল রানা বলেন, ওই মায়ের আকুতি ছিল সন্তান ও স্বজনদের কাছে ফিরে যাবেন। পরবর্তীতে পুলিশের হস্তাক্ষেপে সন্তানদের বুঝিয়ে তাকে পরিবারের কাছে পাঠানো সম্ভব হয়েছে। বৃদ্ধা আম্বিয়া বেগম এখন পরিবারের সঙ্গেই আছেন।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
  • ফেসবুকে daynightbd.com