• শিরোনাম

    চেয়ারম্যানের প্যাড জালিয়াতি করে বহিস্কৃত আ. লীগ নেতার প্রতারণা

    কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতনিধি | ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

    চেয়ারম্যানের প্যাড জালিয়াতি করে বহিস্কৃত আ. লীগ নেতার প্রতারণা

    ঢাকার অদূরে কেরানীগঞ্জের বহিস্কৃত আওয়ামী লীগ নেতা আবু সিদ্দিক ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানের প্যাড জালিয়াতি করে নানা ধরনের প্রতারণা করে আসছিলেন। তবে শেষ পর্যন্ত চেয়ারম্যানের কাছেই বিষয়টি ধরা পড়ে। এ ঘটনায় ঢাকার ৩ নং তারানগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন কেরানীগঞ্জ মডেল থানা সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন।

    থানা পুলিশ সূত্র জানায়, কেরানীগঞ্জের আটি বাজারের ছোট ভাওয়াল গ্রামের দেলোয়ার হোসেন অসাধুপায় অবলম্বন করে ইউনিয়ন পরিষদের প্যাডে অসৎ উদ্দেশ্যে গণস্বাক্ষর সংগ্রহ করছিলেন। স্থানীয়রা পুলিশকে খবর জানান। পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে দেলোয়ার হোসেন জানান, গণস্বাক্ষর সম্পাদিত প্যাডটি স্থানীয় বির্তকিত আওয়ামী লীগ নেতা হাজী আবু সিদ্দিকের নিকট হস্তান্তর করেছেন। আবু সিদ্দিকই প্যাডটি অবৈধভাবে তৈরি করে দেলোয়ার হোসেনকে দিয়েছিল।

    স্থানীয়রা জানান, সরকারি সহায়তা দেওয়ার কথা বলে প্রায় ৩০০ মানুষের কাছ থেকে তারাগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের প্যাডে স্বাক্ষর নেওয়া হয়েছে। কাউকে বলা হয়েছে করোনার জন্য সরকারি ত্রাণ দেওয়ার কথা কাউকে বলেছেন কৃষি কাজে ভর্তুক্তির কথা।

    ষাটোর্ধ্ব বয়সী আশরাফ হোসেন কাজ করেন কৃষি খেতে। করনাকালীন সময়ে সরকারের পক্ষ থেকে কৃষি জমিতে ভর্তুকি দেওয়া হবে একথা বলে দেলোয়ার হোসেন তার কাছ থেকে টিপসই নেন। তিনি বলেন, আমি তো এত কিছু বুঝতে পারিনি। আমাকে বলল কৃষি খেতের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে টাকা দেওয়া হবে।

    একই এলাকার সেলিনা বেগম বাড়ির পাশেই ১০ কাঠা জমিতে শাকসবজি চাষ করেন। করোনা পরবর্তীতে তার শাক সবজি চাষে সরকারের পক্ষ থেকে ভর্তুকি দেওয়ার কথা বলে তার কাছ থেকেও নকল প্যাডে স্বাক্ষর নেন। এছাড়া ছোট ভাওয়ালের তিন রাস্তার মোড়ে মুদির দোকানদার আসিফকেও সরকারি সহায়তা দেওয়ার কথা বলে সাক্ষর নেন।

    এ ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী তারানগর ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য সাদিকুর রহমান জানান, সাক্ষ্য নেওয়ার সময় আমাকে একজন জানিয়েছিলেন। আমি দ্রুত এসে দেখি ইউনিয়ন পরিষদের প্যাডে তিনি সাক্ষ্য দিচ্ছেন। এই প্যাড কোথায় পেলেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, হাজী আবু সিদ্দিক তাকে প্যাডটি দিয়েছেন।

    এই ইউপি সদস্য বলেন, এই চক্রটি সাধারণ মানুষের কাছ থেকে স্বাক্ষর নিচ্ছিলেন। যারা ভালোভাবে পড়াশোনা জানে না, অধিকাংশ টিপসই দিয়েছেন।

    চক্রটির বড় ধরনের কোন অনিয়ম দুর্নীতির জন্যই এ কাজ করছিলেন বলে মনে করেন ইউপি চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন। তিনি বলেন, এভাবে ইউনিয়ন পরিষদের আমার প্যাড জালিয়াতি করে গণস্বাক্ষর নেওয়ার ঘটনায় আমরা উদ্বিগ্ন। প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহরণের জন্য পুলিশকে জানিয়েছি।

    কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি মইনুল জানান, জিডির বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

    স্থানীয়রা জানান, অপরাধমূলক ও বিতকির্ত নানা কর্মকান্ডের জন্য ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের পদ থেকে বহিস্কার করা হয় আবু সিদ্দিককে। তার বিরুদ্ধে জমি দখল, মাদক ব্যবসাসহ নানা অভিযোগে অন্তত ২৭টি মামলা রয়েছে।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    বে-রসিক ইউএনও!

    ১২ মার্চ ২০১৭

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে daynightbd.com