• শিরোনাম

    শিশুকে পুষ্টিকর খাবার খাওয়ার বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করার টিপস

    অনলাইন ডেস্ক | ১১ মার্চ ২০১৭

    শিশুকে পুষ্টিকর খাবার খাওয়ার বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করার টিপস

    ছোটবেলা থেকেই শিশুদের পুষ্টি এবং স্বাস্থ্য সম্পর্কে জানা গুরুত্বপূর্ণ। শিশুর চারপাশের জীবনধারার অভ্যাস থেকেই তার খাদ্যের অভ্যাস তৈরি হয়। শিশুর খাদ্যের পছন্দ এবং খাদ্যের অভ্যাসকে প্রভাবিত করতে পারে পুষ্টির বিষয়ে তার শিক্ষা। কীভাবে আপনার সন্তানকে স্বাস্থ্যকর, ঘরে তৈরি এবং অপ্রক্রিয়াজাত খাবার খেতে উদ্বুদ্ধ করবেন সে বিষয়ে জেনে নিই চলুন।

    পুষ্টির বিষয়ে শেখানো প্রয়োজন কেন?

    দ্যা কমিশন অন চাইল্ডহুড অবেসিটি জানিয়েছে যে, ৫ বছরের নীচের বয়সের ৪১ মিলিয়ন শিশুই অতিরিক্ত ওজন বা স্থূলতার সমস্যায় ভুগছে। অনেকেই শিশুকে স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার জন্য চাপ দিয়ে থাকেন, যার কারণে শিশু কম খাওয়া বা নির্দিষ্ট খাবারকে অপছন্দ করা শুরু করে। তাছাড়া কোন নিষেধাজ্ঞার ফলে শিশুর খাওয়ার প্রবণতা বৃদ্ধি পায়। জোর করলে শিশুর স্বাভাবিক ক্ষুধার অনুভূতি নষ্ট হয়ে যায় এবং শিশুর খাদ্যাভ্যাসে কোন নিয়ন্ত্রণ থাকে না। এর ফলে শিশু বেশি খায় বা কম খায়। শিশুর পুষ্টির বিষয়ে জ্ঞান শিশুকে চিনিযুক্ত খাবার, প্রক্রিয়াজাত খাবার এবং ফাস্ট ফুড খাওয়া এড়িয়ে যেতে সাহায্য করবে। স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া এবং ভালো থাকার বিষয়ে সঠিক জ্ঞান থাকলে স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর খাবার খাওয়া এড়িয়ে যেতে পারবে সে। শিশুকে সঠিক খাদ্য খাওয়ার বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করার জন্য যে পদক্ষেপগুলো নিতে পারেন আপনি :

    ১। খাবার সংরক্ষণ

    আপনার বাসায় মজাদার খাবার তৈরির সামগ্রী সংরক্ষণ করুন যাতে শিশুকে ঘরেই মজাদার খাবার তৈরি করে খাওয়াতে পারেন। প্রতি সপ্তাহে নিয়মিত খাবারের সাথে তাকে নতুন একটি খাবার তৈরি করে দিন।

    ২। শিশুকে অংশগ্রহণ করতে দিন

    আপনার সাথে খাবার তৈরি ও পরিবেশনের সময় আপনার শিশু সন্তানকে অংশগ্রহণ করতে দিন। তার প্লেটে সবজিগুলো এমনভাবে আকর্ষণীয় করে সাজিয়ে দিন যাতে সে খেতে আগ্রহী হয়। একটু বড় শিশুদের সবুজ শাকসবজি কীভাবে বিভিন্ন উপাদান যোগ করে সুস্বাদুভাবে রান্না করা যায় তা শিখাতে পারেন।

    ৩। তাদেরকে সিদ্ধান্ত নিতে দিন

    শিশু কী খেতে চায় সে বিষয়ে তাকে সিদ্ধান্ত নিতে দিন, অবশ্যই স্বাস্থ্যকর খাবারের সমারোহ থেকে। এভাবেই তারা তাদের পুষ্টির বিষয়ে দায়িত্ব নিতে শিখবে।

    ৪। খাদ্যের পছন্দের ক্ষেত্রে ভুল করতে দিন – তাহলে সে শিখবে

    শিশুর খাদ্যের পছন্দের ক্ষেত্রে তাকে বকা দেয়া এড়িয়ে যান। এর পরিবর্তে সুযোগের জন্য অপেক্ষা করুন যাতে সে শিখতে পারে। উদাহরণ হিসেবে বলা যায় যে, কোন বন্ধুর সাথে জাংক ফুড খাওয়ার কারণেই তার পেটে ব্যথা বা বমি বমি ভাব বা পেট খারাপ হয়েছে তা মনে করিয়ে দিয়ে তাকে বোঝাতে পারেন যে এ ধরনের খাবার খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ভালো নয়।

    ৫। খাদ্যের সাথে বন্ধন তৈরিতে সাহায্য করুন

    কোন স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার পর তাকে জিজ্ঞেস করুন যে, সে কেমন অনুভব করছে। তার অনুভূতিকে একটি নাম দিতে পরামর্শ দিন যেমন – ‘শক্তি’ বা ‘খুশি’ ইত্যাদি। সে যদি বাহিরে কোন জাঙ্কফুড বা ডেজারট খেয়ে থাকে তাহলে তাকে সেই খাবারের অনুভূতিও বলতে বলুন যেমন- অস্বাভাবিক বা নিস্তেজ অনুভব করছে কিনা তা বলতে বলুন।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে daynightbd.com