• শিরোনাম

    ‘শতভাগ স্বচ্ছতার মধ্য দিয়ে জঙ্গি নির্মূল করা হচ্ছে’

    আজকের অগ্রবাণী ডেস্ক: | ১৯ মার্চ ২০১৭

    ‘শতভাগ স্বচ্ছতার মধ্য দিয়ে জঙ্গি নির্মূল করা হচ্ছে’

    বাংলাদেশ পুলিশের মহা-পরিদর্শক (আইজিপি) এ.কে.এম শহীদুল হক বলেছেন, শতভাগ স্বচ্ছতার মধ্য দিয়ে দেশে জঙ্গি নির্মূল করা হচ্ছে-কিন্তু একটি মহল জঙ্গিদের নিয়ে ষড়যন্ত্র ও মিথ্যাচার করছে।

    রবিবার দুপুরে সিরাজগঞ্জ শহীদ শামসুদ্দিন স্টেডিয়ামে জেলা পুলিশের আয়োজনে কমিউনিটি পুলিশিং-এর বিশাল সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

    এ সময় উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, জঙ্গী ও মাদক দেশের প্রধান সমস্যা। এ সমস্যা সমাধানে সকলে কাজ করবেন-পুলিশ আপনাদের সাথে থাকবে। আমরা চাই না দেশ তালেবান রাষ্ট্রে পরিণত না হয় সে জন্য এখন থেকেই প্রত্যেক কাজ করতে হবে।

    তিনি বলেন, আমরা জঙ্গিদের হত্যা করতে চাই না। তাদের আত্মসমর্পণের জন্য সময় দেয়া হয়। কিন্তু জঙ্গিরা পুলিশকে লক্ষ্য করে বোমা ছুড়ে। জঙ্গিরা মনে করে তারা মারা গেলে সরাসরি বেহেস্তে যাবে।

    আইজিপি বলেন, ৯৬ সালে আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় এসে পার্বত্য শান্তি চুক্তি করেছিল। তখন তারা প্রকাশ্য মিটিংয়ে বলেছিলেন শান্তি চুক্তির মাধ্যমে ফেনী পর্যন্ত ভারত হয়ে যাবে। ২০১৩ সালে দেলোয়ার হোসেন সাঈদীকে চাঁদে দেখা গেছে এমন মিথ্যাচার করে তারা দেশব্যাপী নাশকতা সৃষ্টি করেছিল। পুলিশকে হত্যা করেছিল।

    আইজিপি আরও বলেন, জনগণ ও পুলিশ একসাথে কাজ করার যে সংস্কৃতি তাই হচ্ছে কমিউনিটি পুলিশিং। হাজার হাজার অভিযান চালিয়ে, কোটি টাকার মাদক উদ্ধার, মাদক ব্যবসায়ী ও মাদকসেবীদের গ্রেফতার এবং হাজারও মামলা দিয়েও মাদকের ভয়াবহতা রোধ করা সম্ভব নয়। সে ক্ষেত্রে সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টি ও নাগরিকদের দায়িত্ববোধ সৃষ্টিতে কাজ করবে কমিউনিটি পুলিশিং ব্যবস্থা।

    সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, শোলাকিয়া ঈদের জামায়াতে কয়েকজন টুপি পরা মানুষ হামলা চালিয়েছিল কিন্তু পুলিশ জীবন দিয়ে লক্ষ লক্ষ মানুষকে রক্ষা করেছে। তিনি বলেন, পুলিশ এখন জীবন দিতে জানে, তাই বাংলায় আর জঙ্গির উত্থান হবে না।
    তিনি বলেন, গণতান্ত্রিক দেশে নির্বাচনের বিকল্প হতে পারে না। নির্বাচনের বিকল্প নির্বাচন। ২০১৪ সালে নির্বাচনে শেখ হাসিনা বলেছিলেন আসেন নির্বাচন পদ্ধতি বের করি। কিন্তু তারা শোনেনি, জ্বালাও-পোড়াও শুরু করেছিল। তিনি বলেন পুলিশ নিরপেক্ষভাবে সরকারকে সহায়তা করবে-এটাই নিয়ম। কিন্তু সেই পুলিশকে তারা ইট দিয়ে থেতলিয়ে হত্যা করছে। তিনি বলেন, আমি নিজেও পুলিশের নির্যাতনের শিকার হয়েছি। কিন্তু আমরা অভিযোগ তুলিনি। কিন্তু তারা কোন রাজনীতি করে যে পুলিশকে হত্যা করে? এ জন্য বাংলার জনগন ২০১৯ সালে তাদের উপযুক্ত জবাব দিবে।
    মোহাম্মদ নাসিম বলেন, জঙ্গি দমনে আমেরিকা পারে নাই, ভারত পারে নাই, সেখানে বাংলাদেশে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে দেশ জঙ্গি মুক্ত হবার পথে।

    পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহম্মেদের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন সদর আসনের সংসদ সদস্য ডা. হাবিবে মিল্লাত মুন্না, তাড়াশ আসনের সংসদ সদস্য ম.ম. আমজাদ হোসেন মিলন, রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি খোরশেদ আলম, র‌্যাব-১২ অধিনায়ক সাহাবুদ্দিন খান ও নারী নেত্রী জান্নাত আরা তালুকদার হেনরী।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে daynightbd.com