• শিরোনাম

    চিটাগং ভাইকিংসের অনেক প্রতীক্ষার জয়

    ডেনাইট ডেস্ক | ২৪ নভেম্বর ২০১৭

    চিটাগং ভাইকিংসের অনেক প্রতীক্ষার জয়

    চার ম্যাচ হেরে চট্টগ্রাম পর্বে এসেছিল তলানিতে থাকা দল চিটাগং ভাইকিংস।  অবশেষে দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর ঘরের মাঠে এসে বিশাল জয়ের দেখা পেয়েছে স্বাগতিকরা। সিলেট সিক্সার্সকে ৪০ রানে হারিয়েছে চিটাগং ভাইকিংস। ঘরের মাঠে ফিরেই বিপিএলে এবারের আসরে সর্বোচ্চ দলীয় রান তুলেছে চিটাগং। ২১২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে তাই আগ্রাসী শুরুর প্রয়োজন ছিল সিলেট সিক্সার্সের।  সানজামুলের প্রথম বলে বিশাল ছক্কা মেরে তেমন বার্তাই দিয়েছিলেন গুনাথিলাকা। এক পর্যায়ে শুরুর ঝড়ে আরও আগ্রাসী মনে হচ্ছিল সিলেটকে। কারণ মেরে খেলছিলেন আরেক ওপেনার আন্দ্রে ফ্লেচারও। এই জুটিতে ৪ ওভারে আসে ৪৩ রান। এরপরে অবশ্য জুটি ভেঙে দেন সানজামুল। সৌম্যকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন গুনাথিলাকা।

    তারপরেও বিধ্বংসী রুপ নিয়ে খেলে যাচ্ছিলেন ফ্লেচার। চার-ছক্কা মেরে প্রতিপক্ষ শিবিরে আতঙ্ক ছড়িয়ে দিয়েছিলেন। ৪৬ বলে যখন ৭১ রান তখনই তাকে তালু্বন্দি করেন তাসকিন। মেরে খেলেছিলেন ফ্লেচার। কিন্তু ব্যাটে বলে না হওয়ায় জমা পড়েন সিকান্দার রাজার হাতে। তার ইনিংসে ছিল ৮টি চার ও ৪টি ছয়। তারপর ফিরে যান ফ্লেচারের সঙ্গী হওয়া বাবর আজম। ৩২ বলে ৪১ রান করা এই তারকাকে ফেরান ভ্যান জিল। এরপর আর থিতু হওয়ার চেষ্টা করেননি কেউ। একে একে ফেরেন সাব্বির রহমান (৩), আবুল হাসান (০) ও ব্রেসনান (২)। অধিনায়ক নাসির হোসেনও ৮ রানের বেশি কিছু করতে পারেননি। শেষ দিকে নুরুল হাসান হাল্কা প্রতিরোধ দিয়ে রানের ব্যবধান কমান মাত্র। তাসকিন তাকে ব্যক্তিগত ২৮ রানে সাজঘরে ফেরালে ৮ উইকেটে ১৭১ রানে থামে সিলেটের ইনিংস।

    চিটাগংয়ের পক্ষে একাই ৪ ওভারে ৩১ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়ে সফল ছিলেন তাসকিন। দুটি করে নেন সৌম্য সরকার ও ভ্যান জিল।  ম্যাচসেরা হন চিটাগংয়ের সিকান্দার রাজা।এর আগে ঘরের মাঠে আগুনে ফর্মেই দেখা গেছে স্বাগতিক চিটাগং ভাইকিংসকে। টসে হেরে ব্যাট করলেও এবারের টুর্নামেন্টে দলীয় সর্বোচ্চ রান করে চিটাগং। জিম্বাবুয়ের তারকা ব্যাটসম্যান সিকান্দার রাজার ঝড়ো ব্যাটিংয়ে সিলেট সিক্সার্সকে ২১২ রানের লক্ষ্য দেয় তারা। ম্যাচের শুরুটা অবশ্য এমন আগুনে ছিল না চিটাগংয়ের। ৬৫ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে ছিল স্বাগতিকরা। লুক রনকি ২৫ বলে ৪১ রানের ঝড়ো ইনিংসে ফিরলে কিছুটা স্লথ হয়েছিল রানের চাকা। তবে সিলেট তখনও ভ্যান জিল ও সিকান্দার রাজার ঝড় দেখতে পায়নি।

    ধীরে ধীরে সিলেট বোলারদের ওপর ঝড় বইয়ে দেন সিকান্দার রাজা ও ভ্যানজিল। ফেরার আগে ৪৫ বলে ৯৫ রান করেন তিনি। তার ইনিংসে ছিল ৯টি চার ও ৬টি ছয়। উল্টো দিকে অতটা আগ্রাসী ছিলেন না ভ্যান জিল। তারপরেও ২৬ বলে ৪০ রানের মিনি ঝড়ে ফেরেন এই তারকা।  এই ইনিংসে ছিল ৪টি চার ও ২টি ছয়। এরপর শেষ দিকে পুঁজি বাড়ানোর দিকে মনোযোগী ছিলেন নাজিবুল্লাহ জাদরান। ১৬ বলে অপরাজিত ছিলেন ১৯ রানে। লুইস রাইস অপরাজিত ছিলেন ৪ রানে। সিলেটের পক্ষে দুটি উইকেট নেন কামরুল ইসলাম রাব্বি। একটি করে নেন আবুল হাসান, ব্রেসনান ও নাসির হোসেন।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    পাকিস্তানে খেলতে চান সাকিব

    ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে daynightbd.com