• শিরোনাম

    রাজধানীতে বৃদ্ধাসহ তিন খুন

    নিজস্ব প্রতিবেদক | ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭

    রাজধানীতে বৃদ্ধাসহ তিন খুন

    রাজধানীতে পৃথক ঘটনায় শিশু-বৃদ্ধাসহ তিনজন খুন হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে উত্তরখানে ছিমরান (৭) নামে এক শিশুকে ও আজ শুক্রবার সকালে তেজগাঁওয়ে মিলু মিলগেড গোমেজ (৬৫) নামে এক খ্র্রিষ্টীয় বৃদ্ধাকে খুন করা হয়েছে। এছাড়া আজ সকালে কল্যাণপুরে রাস্তায় ফেলে রাখা একটি লাগেজের ভেতর থেকে হাত, পা ও মস্তকবিহীন এক ব্যাক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য তাদের লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) ও শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশ।

    উত্তরখান থানার এসআই আনোয়ার হোসেন খান জানান,বৃহস্পতিবার রাতে খবর পেয়ে উত্তরখান উজ্জামপুর ঘাট সংলগ্ন একটি ভাসমান নৌকার পাটাতন থেকে শিশু ছিমরানে লাশ উদ্ধার করা হয়। ছিমরান তার পরিবারের সঙ্গে উজ্জামপুর এলাকায় থাকতো। তার বাবার নাম নাসির উদ্দিন। পারিবারিক কলহের জেড়ে সৎ ভাই বাপ্পি তাকে গলাটিপে হত্যা করে। এ ঘটনায় মৃতের মা সুফিয়া বেগম একটি মামলা হত্যা করেছে। অভিযুক্ত বাপ্পিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

    তেজগাঁও থানার এসআই ফারুক উল ইসলাম জানান, আজ সকালে মহাখালী আরজতপাড়া এলাকার ৩৮ নম্বর নিজ বাসার ৩য় তলার ড্রয়িং রুম থেকে এক খ্রিষ্টীয় বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে, সকাল ৭টা থেকে ৮টার মধ্যে কোন সময় অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিরা ওই বৃদ্ধাকে ধারাল অস্ত্রের আঘাতে খুন কর পালিয়ে যায়। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান তিনি।

    নিহত বৃদ্ধার ভাতিজা সজিব গোমেজ জানান, স্বামী হিউবাট অনি গোমেজের সঙ্গে ওই বাসায় থাকতেন তিনি। মাঝে মধ্যে প্রবাসী চার ছেলের কাছে বেড়াতে যেতেন। গত দুই মাস আগে কানাডা থেকে দেশে আসেন তারা। তাদের কোন শত্রু ছিল না। তবে, ওই সময় মৃতার স্বামী বাসায় থাকলেও তিনি স্পষ্ট কিছু জানাতে পারেননি।

    তেজগাঁও থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সেন্টু মিয়া জানান, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে খবর পেয়ে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। বাড়ির তিনতলায় ড্রইং রুমের দরজার সামনে মৃতদেহটি পড়ে ছিল। নিহত বৃদ্ধার স্বামী অনিল গোমেজ ওই বাড়ির মালিক। বাড়ির বিভিন্ন ফ্ল্যাটে ভাড়াটিয়া থাকলেও বাড়িওয়ালার ফ্ল্যাটে বৃদ্ধ দম্পতি অনিল ও মিলুই থাকতেন। সকালে বাড়ির ভাড়াটিয়ারা পানি না পেয়ে সকাল ৯টার দিকে বাড়িওয়ালা অনিল গোমেজের ফ্ল্যাটে গিয়ে ডাকাডাকি করেন।

    কিছুক্ষণ পর প্রায় ৭০ বছর বয়সের অনিল দরজা খুলে দিলে ভাড়াটিয়ারা বৃদ্ধার রক্তাক্ত লাশ দেখতে পান। এর পরেই ভাড়াটিয়ারা পুলিশকে খবর দেয় জানিয়ে তিনি বলেন,ঘটনাস্থল থেকে বাড়ির কাজে ব্যবহার করা একটি চাকু উদ্ধার করা হয়েছে। বাড়ির দরজা-জানালা ভাঙা বা কোনো মালামাল খোয়া যাওয়ার কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। লাশের শরীরে আঁচড়ের দাগ পাওয়া গেছে।

    এদিকে আজ সকালে দক্ষিণ কল্যাণপুরে রাস্তায় ফেলে রাখা একটি লাগেজের ভেতর থেকে হাত, পা ও মস্তকবিহীন এক ব্যাক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। দারুস্সালাম থানার ওসি সেলিমুজ্জামান জানান, লাগেজে পাওয়া ওই ব্যক্তির বয়স আনুমানিক ৩৫ বছর। ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলেও জানান ওসি।

    জানা গেছে,শুক্রবার সকালে কল্যাণপুর থেকে গাবতলী মুখী সড়কের পাশে পড়ে থাকা একটি স্যুটকেসে ওই লাশ পাওয়া যায়। সকাল থেকে গাবতলীমুখী পথে সোহরাব পেট্রোল পাম্পের কাছে ব্যাপটিস্ট চার্চের সামনে মূল সড়কের পাশে একটি কালো স্যুটকেসে পড়ে ছিল। ল্যাগেজটি দীর্ঘক্ষণ মালিকবিহীন অবস্থায় পড়ে থাকায় স্থানীয় টোকাই স্যুটকেসটি খুলে একটি পুরুষ মানুষের শুধু দেহটুকু দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে daynightbd.com