• শিরোনাম

    বিচারের দাবিতে রাস্তা অবরোধ

    কুবিতে ছাত্রলীগের সংঘর্ষের জেরে বিক্ষোভ

    কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি | ২০ ডিসেম্বর ২০১৭

    কুবিতে ছাত্রলীগের সংঘর্ষের জেরে বিক্ষোভ

    গত ১৪ ডিসেম্বর কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় দোষীদের বিচারের দাবিতে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। আজ বুধবার বিকালে শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। বিক্ষোভ চলাকালে এম কে শান্ত ভূঁইয়া নামের এক ছাত্রলীগ কর্মীকে মারধরের ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়।

    জানা যায়, গত ১৪ ডিসেম্বর শাখা ছাত্রলীগের আয়োজনে ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মাজেদ ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক স্বজন বরণ বিশ্বাসের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক স্বজন বরণ বিশ্বাসসহ তিনজন গুরতর আহত হয়। প্রায় ১ সপ্তাহ পার হলেও দোষীদের বিরুদ্ধে ছাত্রলীগ কোন রুপ ব্যবস্থা না নেয়ায় কাজী নজরুল ইসলাম হলের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বুধবার বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফটকের সামনের সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন।

    রাত ৭টার (বুধবার রাত) মধ্যে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজের এমন আশ্বাসের পরে সড়ক থেকে উঠে আসে বিক্ষোভকারীরা। এসময় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মাজেদও উপস্থিত ছিলেন। তবে এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় জুড়ে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। এতে বড় ধরনের সংঘষের আশঙ্কা করছেন বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যরা।

    শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মাজেদের সাথে কথা বলতে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলেও কথা বলা সম্ভব হয়নি। এঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজ বলেন, ‘বিচারের দাবিতে একদল কর্মীরা বিক্ষোভ করেছে। তাদের দাবির বিষয়ে কেন্দ্রের সাথে আলোচনা চলছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড.কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন বলেন, ‘আমি ঘটনা শুনে দ্রুত ঘটনাস্থলে যাই। কোন অনাকাঙ্খিত ঘটনা যেন না ঘটে সেই লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    বে-রসিক ইউএনও!

    ১২ মার্চ ২০১৭

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে daynightbd.com