• শিরোনাম

    ‘বাংলাদেশে কোচিং করানো জটিল ও নির্মম’ রাসেল ডমিঙ্গো

    স্পোটর্স | বৃহস্পতিবার, ০৬ জুন ২০২৪

    ‘বাংলাদেশে কোচিং করানো জটিল ও নির্মম’ রাসেল ডমিঙ্গো

    ২০১৯ সালের আগস্ট মাস থেকে বাংলাদেশের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন শুরু করেন রাসেল ডমিঙ্গো। তিন বছর চার মাস পর ২০২২ সালে ডিসেম্বরে ছাড়েন প্রধান কোচের পদ। একটি পডকাস্টে এই সময়ের অভিজ্ঞতাটুকুকে বেশ রহস্যময় উপায়ে বর্ণনা করেছেন ডমিঙ্গো। তার মতে বাংলাদেশ কোচিং করানো অনেকটাই জটিল এবং কখনো কখনো নির্মম।

    এমনিতেই উপমহাদেশে কোচিং করানোটা বেশ চ্যালেঞ্জের কাজ। রাসেল ডমিঙ্গোর ক্ষেত্রে সেটা শুধু বাংলাদেশেই সীমাবদ্ধ। বাংলাদেশে কোচিংয়ের অভিজ্ঞতা নিয়ে তিনি বলেন, ‘এমন কিছুই নেই যা আপনাকে বাংলাদেশে কোচিং করানোর জন্য প্রস্তুত করবে। কারণ দক্ষিণ আফ্রিকায় সবকিছু বেশ কাঠামোবদ্ধ। বাংলাদেশে সবকিছুই আপনার উপর। কোনো ব্যাটিং অর্ডার ব্যর্থ হলে, সেটা আপনার ভুল। যদি দল না জেতে, আপনার ভুল। দক্ষিণ আফ্রিকায় আপনি বেশ সুরক্ষিত থাকেন। আমি সুরক্ষিত বলতে বোঝাচ্ছি, আপনি পাশে বেশ সমর্থন থাকে। বাংলাদেশে আপনি প্রধান কোচ, সবকিছু আপনার উপর, এরকম। তাই পুরো বিষয়টাই অনেক জটিল। কখনো তা খুব নির্মমও হতে পারে।’

    বাংলাদেশে আসার ২০১৩ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত পাঁচ বছর প্রোটিয়াদের প্রধান কোচের ভূমিকায় ছিলেন তিনি। তবে সেখানে হাই-প্রোফাইল ক্রিকেটারদের সঙ্গে কাজ করাও নাকি তাকে পুরোপুরি প্রস্তুত করেনি। পিচসাইড পডকাস্টে ডমিঙ্গো বলেন, ‘যেকোনো কোচকেই আমি উৎসাহ দেবো উপমহাদেশে কোনো না কোনো সময়ে কোচিং করানোর জন্য। কারণ উপমহাদেশে কোচিংয়ের মতো উত্তেজনাকর কিছু নেই। এটা বিশৃঙ্খল, এটা নির্মম। কখনো আপনার সস্তা মনে হয় -এটা কীভাবে কাজ করলো অথবা তারা কীভাবে এই দলটা নির্বাচন করলো। কিন্তু তবুও কাজ চলে, তারা নিজেদের দিনে যেকোনো দলকে হারাতে পারে। তো এরকম পরিবেশে কোচিং করানো দারুণ শিক্ষণীয় অভিজ্ঞতা যেকোনো কোচের জন্য। কারণ দক্ষিণ আফ্রিকায় এমন কোনো অভিজ্ঞতা কখনোই হয়নি আমাদের।’

    এ বিষয়ে ডমিঙ্গো আরও বলেন, ‘আমার বয়স এখন ৪৯, আমি কোচিং শুরু করেছি ২১ বছর বয়সে। কোচিংয়ের ২৫ বছর কেটেছে দক্ষিণ আফ্রিকায়। উপমহাদেশের কোচিংয়ের সঙ্গে কোনো কিছুর তুলনা হয় না। যেমন আবেগ, সমর্থন, মিডিয়ার মনোযোগ, জেতার জন্য মরিয়া থাকা- এসব একেবারে ভিন্ন পর্যায়ে দক্ষিণ আফ্রিকার তুলনায়।

    আপনাকে অবশ্যই বুঝতে হবে বাংলাদেশের মতো জায়গায় ২০ কোটি মানুষের বসবাস, এবং শুধুমাত্র ক্রিকেটেই তাদের আগ্রহ। দক্ষিণ আফ্রিকায় আমাদের ৬ কোটি মানুষ। আমাদের আছে রাগবি, ফুটবল. ক্রিকেট, বক্সিং- তো এখানে ক্রিকেটে কিছুটা কম অনুসারী আছেন। বাংলাদেশে শুধুই ক্রিকেট। ওই রকমের প্রত্যাশা, চাপ, অবিরত তদন্ত মোকাবেলা করতে পারা অবিশ্বাস্য শিক্ষণীয় অভিজ্ঞতা যেকোনো কোচের জন্যই।’

    Facebook Comments Box

    বাংলাদেশ সময়: ১১:৫২ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৬ জুন ২০২৪

    daynightbd.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    নিশাম এসেই রংপুরের জয়ের নায়ক

    ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

    আর্কাইভ

    সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০